“দ্য গিভিং ট্রি” বাংলা রূপ

maxresdefault

 

"দ্য গিভিং ট্রি’ বাংলা রূপ
-মূল লেখকঃ শেল সিলভারস্টেইন

 

অনেক দিন আগে একটি গাছ ছিল । সে একটি ছোট ছেলেকে ভালোবাসত। প্রতিদিন ছেলেটা আসত। গাছের পাতা সংগ্রহ করত । এবং সেগুলো দিয়ে মাথার মুকুট বানিয়ে জঙ্গলের রাজা হয়ে খেলা করত। ছেলেটি গাছের কাঠের শরীর বেয়ে উপরে উঠত । ডালপালা ধরে দোল খেত , গাছের আপেল খেত । তারা লুকোচুরি খেলত । যখন সে ক্লান্ত হয়ে পড়ত, তখন গাছের ছায়ায় ঘুমিয়ে পড়ত।

ছোট বালকটি গাছটিকে অনেক ভালোবাসত..
.
খুব ভালোবাসত

এবং গাছটি তখন ছিল সুখী।

তারপর অনেক সময় চলে গেল ...

ছোট ছেলেটি বড় হয়ে উঠল

এবং গাছটি বেশিরভাগ সময়ের জন্য হয়ে পড়ল একা

অনেকদিন পর একদিন বালকটি এল। গাছটি তাকে বলল, “এসো বালক, এসো এবং আমার কাঠের শরীর বেয়ে উঠ। আমার ডালপালা ধরে দোল খাও। আমার আপেল খাও। আমার ছায়ায় খেলাধুলা করে আনন্দ করো।”

ছেলেটা বলল, “আমি গাছে চড়া এবং খেলাধুলা করার সময় পার করে এসেছি।”

“এখন আমি বিভিন্ন জিনিসপত্র কিনে মজা করতে চাই। আমার টাকা দরকার। তুমি কি আমাকে কিছু টাকা দিতে পারবে? ”

গাছটি বলল, “আমি দুঃখিত । আমার কাছে কোন টাকা নেই। আমার শুধু আপেল
আর পাতা আছে। আমার আপেলগুলো নাও। শহরে নিয়ে গিয়ে বিক্রি কর। তাহলে তুমি টাকা পাবে এবং সুখী হতে পারবে। ”

বালকটি তাই গাছে উঠল।

আপেলগুলো সংগ্রহ করে নিয়ে চলে গেল...

তখন গাছটি ছিল সুখী...

তারপর অনেকদিন বালকটি দূরে ছিল...

এবং তখন গাছটি হয়ে পড়ল অসুখী....

আবার একদিন বালকটি এল।

আনন্দে উচ্ছসিত হয়ে গাছটি বলল, “এসো বালক, আমার কাঠের শরীরে চড়ে বসো, দোল খাও আমার ডালপালা ধরে এবং আনন্দ করো।”

ছেলেটি বলল, “আমি অনেক ব্যস্ত, নিজেকে গরম রাখার জন্য আমার একটি ঘর দরকার।”

“আমার একটি স্ত্রী এবং সন্তান চাই। সুতরাং ঘর প্রয়োজন। তুমি কি আমাকে একটি ঘর দিতে পারবে?”

গাছ বলল, “আমার কোন ঘর নেই, এই জঙ্গল আমার ঘর বাড়ি। তবে তুমি আমার
ডালপালা কেটে নিয়ে ঘর বানাতে পারো। তাহলে তুমি সুখী হবে।”

বালকটি গাছের সব ডালপালা কেটে ফেলল।

এবং সেগুলো নিয়ে চলে গেল তার ঘর বানাতে।

তখন গাছটি ছিল সুখী

তারপর আরো অনেকদিন বালকটি দূরে থাকল।

গাছটি তখন ছিল দুঃখ ভারাক্রান্ত।

এবং যখন বালকটি আবার ফিরে এল গাছটি খুশিতে প্রায় বাকরুদ্ধ হয়ে পড়ল।

“এসো বালক,” সে ফিশফিশ করে বলল।

“এসো এবং খেলা করো।”

“আমি অনেক বড় এবং দুখী হয়ে গেছি, ” ছেলেটি বলল।

“এখান থেকে দূরে চলে যেতে আমার একটি নৌকা দরকার। তুমি কি আমাকে একটি নৌকা দিতে পারবে? ”

গাছটি বলল, “আমার কাঠের শরীরটা কেটে ফেল এবং তা দিয়ে নৌকা বানাও,
তাহলে তুমি দূরে যেতে পারবে এবং সুখী হতে পারবে... ”

বালকটি গাছের কাঠের শরীরটি কেটে ফেলল

এবং নৌকা বানাল ও নৌকায় চড়ে দূরে চলে গেল...

তখনো গাছটি সুখী ছিল

অথবা সত্যিকার অর্থে ছিল না...

তারপর অনেকদিন পরে বালকটি আবার ফিরে এল

“আমি দুঃখিত বালক,” গাছটি বলল।

“তোমাকে দেয়ার মত আমার কাছে আর কিছু নেই, আমার আপেলগুলো শেষ হয়ে গেছে।”

“আপেল খাওয়ার মত শক্তি আমার দাতে নেই,” বলল ছেলেটি।

গাছটি বলল, “আমার ডালপালা নেই, তুমি আর দোল খেতে পারবে না।”,

“আমি অনেক বৃদ্ধ হয়ে গেছি ডালপালা ধরে দোল খেতে পারব না এখন,” ছেলেটি উত্তর দিল।

“আমার কাঠের শরীরও নেই, তুমি চড়তে পারবে না,” গাছটি বলল।

“চড়তেও পারব না আমি কারণ আমি অনেক ক্লান্ত,” উত্তরে বলল ছেলেটি।

গাছটি বলল, “আমি দুঃখিত।”

"আমার ইচ্ছা ছিল তোমাকে কিছু দেয়ার।”

“কিন্তু আমার দেয়ার মত আর কিছুই নেই। আমি একটি বৃদ্ধ গাছের গুঁড়ি মাত্র।”

“আমি দুঃখিত।”

ছেলেটি বলল, “আমার এখন আর তেমন কিছুর দরকার নেই,”

“আমার শুধু একটি শান্ত জায়গা দরকার বসে বিশ্রাম নেয়ার জন্য। আমি অনেক ক্লান্ত।”

গাছ উৎসাহী কন্ঠে নিজেকে যতটুকু পারা যায় সোজা করে বলল, “ঠিক আছে, একটি বৃদ্ধ গাছের গুঁড়ি বসা ও বিশ্রাম নেয়ার জন্য খুব ভাল। এসো বালক, এসো, বসো, বসো এবং বিশ্রাম নাও।”

বালকটি তখন গাছের গুঁড়ির উপর বসে পড়ল।

এবং তখন গাছটি ছিল সুখী।

-সমাপ্ত-

লেখক পরিচিতিঃ শেল সিলভারস্টেইন একজন আমেরিকান কবি, গীতিকার, কার্টুনিস্ট ও ছোটদের বইয়ের লেখক। ১৯৩০ সালে এই প্রতিভাবান ব্যক্তি জন্মগ্রহন করেছিলেন। তার মৃত্যু হয় ১৯৯৯ সালে।

গিভিং ট্রি সম্পর্কেঃ এটি একটি ছোটদের জন্য ছবি পুস্তিকা যা প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৬৪ সালে। এর ইলাস্ট্রেশন করেছিলেন লেখক নিজেই। গল্পটি আমার অতি প্রিয় গল্পদের একটি। যেদিন প্রথম পড়েছিলাম খুব খারাপ লেগেছিল গাছটির কথা ভেবে। সে খারাপ লাগা হয়েছিল দীর্ঘস্থায়ী। এখনো পড়লে একই অনুভূতি হয়। বাংলায় রূপান্তর করে রেখেছিলাম। আজ ট্রি নামের একটা ফোল্ডারে পেয়ে গেলাম।

Share
আপনার মূল্যবান সময় ব্যয় করে লেখাটি পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ। লেখার স্বত্ত্ব লেখক কতৃক সংরক্ষিত, কপি করবেন না। লিংক শেয়ার করুন, তাতে অন্যরা পড়ার সুযোগ পাবেন।

Leave A Comment