by

হন্টন

honthon

 

 

চৈত্র মাসের এক প্রচন্ড দুপুরে হঠাৎ করেই পৃথিবীর লোকজন হাটতে ভুলে গেল। মানুষ ভুলে গেল কীভাবে হাটতে হয়। কীভাবে পায়ের পর পা ফেলে হেটে যেতে হয়।

তারা এও ভুলে গেল যে একদিন তারা হাটতে জানত। তাদের মস্তিষ্কের যে অংশে হাটাচলা সংক্রান্ত তথ্য রাখা ছিল তা হঠাৎ করেই যেন মুছে গেছে!

এই হাটা ভুলে যাওয়ায় মানুষজনের মধ্যে কোন পরিবর্তন লক্ষ করা গেল না। তারা তখন ধরেই নিয়েছিল কখনো কোনদিন তারা হাটে নি অথবা হাটা নামে কোন কিছু পৃথিবীতে ছিল।
যেন কিছুই হয় নি এমন ভাবে তারা প্রাত্যহিক কাজগুলো করে যেতে লাগল।
এরকম চলল প্রায় মাসখানেক।

তারপর আবার একদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে মানুষজন হেটে বাথরুমে গেল।বাজারে গেল। অফিসে, ইস্কুলে বা নিজ নিজ কর্মস্থলে।

তারা বেশ স্বাভাবিক ভাবেই হেটে যেতে লাগল। এতদিন যে তারা হাটতে পারে নি এমন কোন স্মৃতি তাদের মাথায় ছিল না। তাদের মনে হতে লাগল জন্ম থেকেই তো তারা হেটে এভাবে আসছে।

মাস খানেক না হাটার ফলে পা কিছুটা ফুলে গিয়েছিল কারো কারো। তারা কেবল হাটতে গিয়ে সামান্য ব্যথা পাচ্ছিল পায়ে এবং বার বার ভ্রু কুঁচকে বিরক্তিভরা দৃষ্টিতে তাকাচ্ছিল রাস্তার দিকে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *