ফিল্ম

by

চার্লি যে মেসেজ দেয় শুন্দরী পেন্ডে ও পান্ডাদের

চার্লি ফিল্মের কাহিনীর দুর্বলতা হইল, চার্লির মানবিক অবস্থানের বাইরে আর কোন অবস্থান নাই। স্বস্তা কিছু জিনিস, চমক টমক, মানুষরে চমকে দেয়া ইত্যাদিতেই মগ্ন সে। অবশ্য সে একবার মারমুখী হয় ম্যারীর বাচ্চারে বাঁচাইতে তার বাপের হাত থেকে, ফলে তার বিপ্লবী স্বত্তা যে নাই তা না। কিন্তু কাহিনীকার তারে ফুটাইয়া তুলতে পারেন নাই, বা ইচ্ছা কইরাই তিনি তার চরিত্ররে পুরা দেখান নাই।

by

আমেরিকান হিস্টোরী এক্স ও এডওয়ার্ড নর্টন

থ্রিলারের একটি টেকনিক হলো হঠাৎ মাঝখান থেকে শুরু করা। যেমন লেখা হলো বা দেখানো হলো তিনজন লোক মরে পড়ে আছে আর একপাশে পিস্তল হায়ে খুঁড়িয়ে যাচ্ছে নায়ক। সে গিয়ে বসল এক জায়গায়। তখন তার স্মৃতিতে দেখানো শুরু হলো কীভাবে এসব ঘটনা ঘটল, সে কে, যারা মরে পড়ে ছিল তারা কে, ইত্যাদি। আমেরিকান হিস্টোরী এক্স এই ফর্ম অনুসরন করেছে।

by

দ্য লাইভস অব আদারসঃ অন্যের জীবনসমগ্র

মানুষের নিজস্ব অবচেতনের বাইরেও একটি কালেকটিভ বা সমগ্র অবচেতন রয়েছে। এই সমগ্র অবচেতন সে পেয়েছে তার প্রজাতিগত উত্তরাধিকার হতে। এই সমগ্র অবচেতনে, প্রতিটি মহিলার ভেতরে রয়েছে একটি পুরুষস্বত্তা এবং প্রতিটি পুরুষের ভেতরে রয়েছে এক নারী স্বত্তা।

by

ভিক্রাম-ভেধাঃ একই মুদ্রার দুই পিঠ?

বেতালের গল্প শুনে রাজা বিক্রমাদিত্য জানতে পেরেছিলেন, যে তান্ত্রিকের কথায় তিনি বেতালকে ধরতে এসেছেন সে নিজেই ভয়ংকর যাদুকর। সে বেতাল এবং তাকে বলি দিয়ে বিশেষ ক্ষমতাপ্রাপ্ত হতে চায়। একইভাবে ভেধার গল্পে পুলিশ অফিসার বিক্রম গ্যাংস্টার ভেধাকে ধরার পুলিশি মিশন সম্পর্কে নতুন কিছু জানতে পারে, যা তার পুরানো জানাকে ভেঙ্গে দেয়।

by

নো কান্ট্রি ফর ওল্ড ম্যান

মধ্যযুগীয় ফ্রেঞ্চ দার্শনিক মিশেল ডি মন্টেইনরে স্মরন করা যায়। মন্টেইন তার বিখ্যাত প্রবন্ধগুলার একটাতে লিখে গেছেন, যখন বই পড়তে গিয়ে কঠিন কোন জায়গার মুখে পড়তেন তখন তিনি একবার কামড় বসানোর ট্রাই করতেন। এতে না হইলে আরেকবার।