ওয়ারেন বাফেটের প্রজ্ঞাংশ

ওয়ারেন বাফেট চার্লি মাঙ্গারের বন্ধু ও পার্টনার। তিনি পৃথিবীর একজন বড় ব্যবসায়ী হিসেবে শ্রদ্ধেয়, এবং তার প্রজ্ঞা নানা সেক্টরের মানুষের জন্য উপকারী। তিনি দিনের অধিকাংশ সময় বই পড়ে ও চিন্তায় কাটান ; এবং তার ইনভেস্টমেন্ট সাফল্যের এক বড় কারণ এটাই বলে তিনি মত দেন। পড়া ও অভিজ্ঞতার মাধ্যমে অর্জিত প্রজ্ঞা তিনি সবার সাথে শেয়ার করেন তার লেখায়, বক্তব্যে। সেগুলি থেকে কিছু অংশ নেয়া হয়েছে এবং তা ইংরাজি থেকে বাংলায় অনুবাদ করে দেয়া হয়েছে এই লেখায়।

ওয়ারেন বাফেট

ওয়ারেন বাফেট

 

“যদি প্রচুর ভুল না করেন তাহলে জীবনে আপনার মাত্র অল্প কিছু ঠিক কাজ করতে হবে।”

 

“অসাধারন ফলাফলের জন্য অসাধারন সব কাজ প্রয়োজনীয় নয়।”

 

“আমি প্রচুর সময় বসে থাকতে ও চিন্তা করতে বলি, প্রায় প্রতিদিন। আমেরিকান ব্যবসার জন্য এটা অস্বাভাবিক। আমি পড়ি ও চিন্তা করি। যেহেতু আমি বেশী পড়ি ও বেশী চিন্তা করি তাই ব্যবসার অন্য সবার চাইতে হুজুগে/আবেগ তাড়িত সিদ্ধান্ত কম নেই।”

 

 “একজন ইনভেস্টরের দরকার নির্বাচিত ব্যবসাগুলি ঠিকমত মুল্যায়ন করা। এখানে খেয়াল করুন আমি নির্বাচিত বলেছি। আপনাকে সব কোম্পানি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ হতে হবে না। আপনাকে কেবল আপনার সক্ষমতার বৃত্তের ভেতরে থাকা কোম্পানিগুলি মূল্যায়ন করতে হবে। এই বৃত্তের আকার কত বড় তা গুরুত্বপূর্ন নয়, গুরুত্বপূর্ন হলো এর সীমা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা থাকা।”

 

 “যে ইনভেস্টর কোন কিছুই জানেনা এবং এই না জানা সম্পর্কে সে জানে, তাকে নিয়ে কোন সমস্যা নেই। সমস্যা হলো যখন আপনি কিছুই জানেন না এবং ভাবেন আপনি কিছু জানেন।"

 

 “যে ঘোড়া দশ পর্যন্ত গুনতে পারে সে একটি অসাধারণ ঘোড়া – কিন্তু অসাধারণ গণিতবিদ নয়।”

 

“আমারে বলো কারা তোমার হিরো, আমি তোমাকে বলে দিব তুমি কী হতে যাচ্ছো।”

 

“...লোভের বশবর্তী হয়ে আমরা যা ভালোবাসি তা না করে অন্য কিছু করা হলো জীবনের খুবই বাজে ম্যানেজমেন্ট।”

 

“মানুষ সব সময় আমাকে জিজ্ঞেস করে তারা কোথায় কাজ করতে যাবে এবং আমি সবসময় বলি তার হয়েই কাজ করতে যাও যাকে তুমি সবচেয়ে বেশী প্রীতিমিশ্রিত শ্রদ্ধার চোখে দেখো।”

 

“ব্যবসায় সফল ব্যক্তিরা তারাই যারা যা ভালোবাসেন তাই করছেন।”

 

“একসময় তোমার সময় আসবে যা চাও তা করতে শুরু করার। সেই জবই নাও যা তুমি ভালোবাসো। সকালে লাফ দিয়ে উঠবে ঘুম থেকে। যদি তুমি কোন জব পছন্দ করো না, কিন্তু করছো কেবল সিভি সমৃদ্ধ করার জন্য, তাহলে আমার মতে তোমার মাথা কাজ করছে না। এটা কিছুটা বৃদ্ধ বয়সের জন্য সেক্স জমিয়ে রাখার মতো নয় কি?”

 

“সবচেয়ে বড় ইনভেস্টমেন্ট তুমি করতে পারো তোমার নিজের উপরে।”

 

“মনে করো যে তোমার একটি গাড়ি আছে, সারা জীবনের জন্য মাত্র একটি। তাহলে অবশ্যই তুমি এর খুব যত্ন নেবে, প্রয়োজনের চাইতে বেশীবার তেল বদলাবে, সাবধানে চালাবে ইত্যাদি। এখন, ভেবে দেখো, তোমার একটাই বডি এবং একটাই মাইন্ড আছে। এগুলিকে জীবনের জন্য প্রস্তুত করো, যত্ন নাও। একজন মানুষের সবচেয়ে বড় সম্পদ সে নিজে, তাই নিরাপদ রাখো ও উন্নত করো নিজেকে।”

 

“ তোমাকে নিজের সময়ের উপর পূর্ন নিয়ন্ত্রণ রাখতে হবে। অন্যথায় তুমি না বলতে পারবে না। তুমি তোমার জীবনের এজেন্ডা ঠিক করে দেয়ার সুযোগ অন্যদের দিতে পারো না।”

 

“সফল এবং আসলেই সফল মানুষের মধ্যেকার পার্থক্য হলো আসলেই সফল মানুষেরা প্রায় সব কিছুতেই না বলেন।”

 

“খেলা সেইসব খেলোয়াড়ই জিতে যারা মাঠের দিকে মনযোগ দেয়, যারা স্কোরবোর্ডের দিকে চোখ দিয়ে রাখে তারা নয়।”

 

“নিজেকে যদি কোন গর্তের মধ্যে পাও তাহলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন কাজ হচ্ছে খোঁড়া বন্ধ করা।”

 

“সুযোগেরা প্রায়ই আসে। যখন স্বর্নবৃষ্টি হয় তখন বালতি নিয়ে বের হইও, অঙ্গুষ্ঠানা নিয়ে নয়।”

 

 

Share
আপনার মূল্যবান সময় ব্যয় করে লেখাটি পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ। লেখার স্বত্ত্ব লেখক কতৃক সংরক্ষিত, কপি করবেন না। লিংক শেয়ার করুন কারণ তাতে অন্যরা পড়ার সুযোগ পাবে

Related Posts

Leave A Comment